ভারত কর্তৃক টিপাই মুখে বাঁধ নির্মাণের চক্রান্ত প্রতিহত করুন।। বাসদ

চক্রান্ত? ভারত কি কাউকে না জানিয়ে এই বাঁধ নির্মাণ করতে গিয়ে ধরা পড়েছে? না কি বাঁধ নির্মাণের প্রধান উদ্দেশ্য বিদ্যুৎ উৎপাদন ও বন্যা নিয়ন্ত্রণের প্রাথমিক পরিকল্পনা থেকে সরে গিয়ে, নিজের কিছু ক্ষতি করে হলেও, বাংলাদেশের বড় মাপের ক্ষতি করার জন্যই অসদুদ্দেশ্যে যা তা একটা বাঁধ নির্মাণ করতে উদ্ধত হয়েছে?

২০০৩ ও ২০০৫-এর যৌথ নদী কমিশনের বৈঠকের প্রধান আলোচ্য বিষয় ছিল টিপাইমুখ বাঁধ। আলোচনায় বড় কোনো অভিযোগ উত্থাপিত না হওয়ায় ভারত আর্ন্তজাতিক দরপত্র আহবানের মাধ্যমে টিপাইমুখ প্রকল্পের শিলান্যাস করে। আমরা এই ২০০৯-এর আগে কখনোই এই বাঁধ বিষয়ে বড় রকমের কোনো অভিযোগ বা প্রচার মাধ্যমে কোনো আলোড়ন ঘটতে দেখিনি। আজ খালেদা জিয়ার একান্ত ব্যক্তিগত কিছু চিঠি চালাচালির পর, কেন টিপাইমুখ বাঁধ নিয়ে সবাই হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন ? আর বাসদ-এর কর্মকাণ্ড দেখে তো মনে হচ্ছে খালেদা জিয়ার একান্ত ব্যক্তিগত উদ্দেশ্যে পরিকল্পিত এই টিপাইমুখ বাঁধ ইস্যুর আন্দোলন সংগঠনে তার দল বিএনপি-র অক্ষমতার কারণে, আন্দোলন সংগঠনের দায়িত্বে বাসদ-কে নিয়োজিত করা হয়েছে। শুধু টিপাইমুখ নয়, এশিয়ান হাইওয়ে ইস্যুতেও বাসদ-এর বক্তব্য, “ এশিয়ান হাইওয়ের নামে ভারতকে ট্রানজিট দেয়া চলবে না”। আমাদের পাশের পশ্চিমবঙ্গে আমরা মমতাময়ী তৃণবাদী এসইউসি-কে দেখছি, অচিরেই কি আমাদের দেশেও আমরা খালেদামোদী জাতীয়তাবাদী বাসদ-কে দেখতে পাব ?

মাসুদ করিম

লেখক। যদিও তার মৃত্যু হয়েছে। পাঠক। যেহেতু সে পুনর্জন্ম ঘটাতে পারে। সমালোচক। কারণ জীবন ধারন তাই করে তোলে আমাদের। আমার টুইট অনুসরণ করুন, আমার টুইট আমাকে বুঝতে অবদান রাখে। নিচের আইকনগুলো দিতে পারে আমার সাথে যোগাযোগের, আমাকে পাঠের ও আমাকে অনুসরণের একগুচ্ছ মাধ্যম।

13
আলোচনা শুরু করুন কিংবা চলমান আলোচনায় অংশ নিন ~

মন্তব্য করতে হলে মুক্তাঙ্গনে লগ্-ইন করুন
avatar
  সাবস্ক্রাইব করুন  
সাম্প্রতিকতম সবচেয়ে পুরোনো সর্বাধিক ভোটপ্রাপ্ত
অবগত করুন
অবিশ্রুত
সদস্য

পশ্চিমবঙ্গের মমতাময়ী এসইউসির মতো খালেদামোদী বাসদকে দেখা যাবে কি না জানি না, তবে টিপাইমুখসংক্রান্ত তথ্যে দেখছি, ২০০৫ সালে বিএনপির নেতৃত্বাধীন জোট সরকার থাকার সময়েই বাসদ সিলেট থেকে জকিগঞ্জ অবধি একটি লং মার্চ কর্মসূচি করেছিল বাঁধ নির্মাণের পরিকল্পনার প্রতিবাদে। কাজেই খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিঠি চালাচালির পর সবাই টিপাইমুখ নিয়ে হুমড়ি খেয়ে পড়ার ব্যাপারটি সম্ভবত ঠিক নয়। বাসদের ওই লংমার্চের সংবাদ অবশ্য তেমন কোনও মিডিয়া কভারেজ পায়নি। শুধু এটি কেন, আলোড়ন তোলার মতো অনেক কর্মসূচি পালন করেও সিপিবি থেকে শুরু করে বাসদের মতো দলগুলি কোনওসময়েই তেমন কল্কে পায় না মিডিয়াতে। কখনও তাদের সংবাদ ছাপা হয় ফিলার হিসেবে, কখনও উপাঙ্গ হিসাবে, কখনও আবার… বাকিটুকু পড়ুন »

সৈকত আচার্য
সদস্য

কিন্তু বাম দলগুলোর গতানুগতিক অলসতাও চরম সত্য। বিএনপি বা আওয়ামী লীগের কোনকিছুকে মুখস্থ ‘চক্রান্ত’ বলাতে আমরা অভ্যস্ত, এবং বুর্জোয়া দলগুলোর এমন আচরণের অনুকরণ বাম দলগুলোর মোটেই উচিত নয়। আমারো মনে হয় বাম দলগুলো গতানুগতিক ধারায় প্রতিবাদ আন্দোলন করে চলেছে এবং আমরা তো প্রচার পাই না এই জাতীয় বোকামানুষী আবদার করে চলেছে। আপনি যদি হাজারো মানুষের মিছিল রাজপথে নামাতে পারেন, প্রতিটি গুরুত্বপূর্ন জাতীয় ইস্যুতে, আপনি যদি প্রতিটি গণবিরোধী কর্মসূচীর বিকল্প, সুনির্দ্দিষ্ট এবং গ্রহণযোগ্য সমাধান দেশবাসীর সামনে হাজির করতে পারেন এবং সাংগঠনিক ক্ষমতার জোরে তা প্রচার করতে পারেন আপনাকে ঠেকাবে কে? প্রচলিত মিডিয়া কয়দিন আপনাকে প্রচার না দিয়ে পারবে? আরেকটা ব্যাপার হলো… বাকিটুকু পড়ুন »

মোহাম্মদ মুনিম
অতিথি
মোহাম্মদ মুনিম

বাসদ অফিসে জামান ভাইকে (খালেকুজ্জামান) একবার mainstream এর পত্রিকাগুলোতে লেখার ব্যাপারে জিজ্ঞেস করেছিলাম। তিনি একই কথা বললেন, ওরা ছাপবে না। বাসদ এর VANGUARD পত্রিকাটি সম্ভবত বাসদ কর্মীরাই পড়েন না, জনসাধারণ তো দুরের কথা। ১৯৯৬ এ ফারাক্কা চুক্তির পরে বাসদ একটি সেমিনার এর আয়োজন করেছিল। আমার এক বাসদ কর্মী বন্ধু বলল সেমিনারে নাকি বলা হয়েছে ভারত ‘খাল কেটে কেটে’ ফারাক্কার upstream থেকে দেড় লাখ CUSEC পানি সরিয়ে ফেলে। ফারাক্কার কারনে আমাদের অনেক ক্ষতি হয়েছে তাতে সন্দেহ নেই, কিন্তু পুরকৌশলের ছাত্র হিসাবে কেবল খাল কেটে কেটে এত পানি কি করে সরিয়ে ফেলা যায়, এটা আমার বোধগম্য হয়নি। বাসদের অফিসে আমি অনেকবার গিয়েছি,… বাকিটুকু পড়ুন »

রশীদ আমিন
সদস্য

বিরোধিতার জন্যই শুধু বিরোধিতা অথবা অপরিনামদর্শি বিরোধিতার কারনে আমাদের দেশটি অনেক অনেক পিছিয়ে গেছে । ছোট ছোট বামদল গুলি এই ধরনের ইস্যু তৈরী করতে ওস্তাদ । বাসদের রাজনীতি নিয়ে আমারও কিছু কথা আছে । জীবনের সর্বক্ষেত্রে মার্কসবাদ লেলিনবাদ স্লোগান দিয়ে শুরু হয়েছিল তাদের যাত্রা , বর্তমানে আমি জানিনা তাদের অবস্হা কোন পর্যায়ে এসে দাড়িয়েছে , তবে ছাত্রদের মধ্যে একটা প্রভাব বোধ হয় আছে , দলের নেতাদের ত্যাগী আচরণ এবং সবাইকে আপন করে নেয়ার ক্ষমতা হয়তো কোমলমতি ছাত্রদেরকে আকৃষ্ট করে , তবে তাদের চুরান্ত লক্ষ নিয়ে বিভ্রান্তির কারনে অনেক সদস্যই ড্রপ আউট হয়ে যায় । আরেকটি বিষয় হচ্ছে কোলকাতার এক অখ্যাত… বাকিটুকু পড়ুন »

রায়হান রশিদ
সদস্য

পোস্টটি পড়ে জানতে পারলাম টিপাইমুখ এর ইস্যুতে বাসদ ব্যাপারটিকে “চক্রান্ত” হিসেবে উল্লেখ করেছে। চারু মজুমদারের “বিপ্লবীর কর্মকান্ড হবে চক্রান্তমূলক” উপদেশটি মনে করিয়ে দেয় যেন। শব্দটির প্রয়োগ কতটা যুক্তিযুক্ত সে ব্যাপারে মতভিন্নতা থাকতেই পারে। আর রাজনীতির অঙ্গনে জনগণের সামনে ইস্যু উপস্থাপনে কিছুটা অতিকথন তো থাকতেই পারে (না থাকলেই হয়তো ভাল হোতো); মনে হয় না সেটা খুব একটা বড় ব্যাপার। আর অতীত সরকারের আমলে বাসদ ইস্যুটি নিয়ে প্রতিবাদ করেছে কি না, কিংবা তাদের পশ্চিমবঙ্গের সহ-সংগঠন তা নিয়ে এখনো মাঠে নেমেছে কি না, কিংবা এখনকার আন্দোলনে বাসদ এবং জামাত-বিএনপির দীর্ঘশ্বাস একাকার হয়ে গেছে কি না, আর হলে সেখানে কি ধরণের উদ্দেশ্যপ্রণোদনা কাজ করছে… বাকিটুকু পড়ুন »

pranabesh
অতিথি

সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের উদ্যোগে আজ ১৬ জুলাই ’০৯ বৃহস্পতিবার, সকাল ১১ টায় শহীদ মুনীর চৌধুরী মিলনায়তন, টিএসসি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে “টিপাইমুখ বাঁধ, বাংলাদেশে এর প্রভাব এবং বাংলাদেশ-ভারত সর্ম্পক” শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় অংশগ্রহণ করেন বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল- বাসদ আহবায়ক কমরেড খালেকুজ্জামান, জাতিসংঘের সাবেক পরিবেশ ও পানি বিশেষজ্ঞ ড. এস আই খান, পানিসম্পদ পরিকল্পনা সংস্থার সাবেক মহাপরিচালক প্রকৌশলী ম. ইনামুল হক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক আকমল হোসেন। সভাপতিত্ব করেন সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ফখরুদ্দিন কবির আতিক এবং সভা পরিচালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক জনার্দন দত্তনান্টু। বাসদ আহবায়ক কমরেড খালেকুজ্জামান বলেন— পৃথিবীর অন্যতম বৃহত্তম পলিবাহিত… বাকিটুকু পড়ুন »

  • Sign up
Password Strength Very Weak
Lost your password? Please enter your username or email address. You will receive a link to create a new password via email.
We do not share your personal details with anyone.