বাংলাদেশের প্রধান রাজনৈতিক দল ও বাংলাদেশের স্বাধীনতার নেতৃত্ব দেয়া রাজনৈতিক ঐতিহ্যের ধারক আওয়ামী লীগের ষাটতম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর খবর বাংলাদেশের বর্তমান প্রধান পত্রিকা ‘প্রথম আলো’র প্রথম পাতা ও শেষ পাতায় দেখতে না পেয়ে পুরো পত্রিকাটিতেই খবরটি খুঁজলাম, না, কোথাও খবরটি পাওয়া গেল না। প্রচেষ্টার দশ বছর, কোন প্রচেষ্টা? হ্যাঁ, সেই প্রচেষ্টা যার মাধ্যমে বলা যায়, এই দশটি বছর, অসৎ নিরপেক্ষতার মতিউর দশক। তার এই অসৎ নিরপেক্ষতা নিরন্তর যাকে লক্ষ্য করে এগিয়েছে সে আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনা। হাসিনা বিরোধিতার সার্বক্ষনিক কর্মী মতিউর রহমান, ২০০১ সালে আওয়ামী লীগের ক্ষমতা হস্তান্তরের পরদিন তার পত্রিকার শিরোনাম করেছিলেন ‘গণতন্ত্রের নাজাত দিবস’। সেই কর্মীই কিছুদিন আগে বাংলাদেশের সেনাবাহিনী প্রধান নিয়োগে অনিয়মের প্রধান আসামী করলেন শেখ হাসিনাকে। বাংলাদেশের সংবাদপত্র জগতের দুর্ভাগ্য এখানে যে, এই মতিউর দশক কাটিয়ে আর কোনো সম্পাদক বা কোনো পত্রিকা, প্রাণশক্তির স্পর্শে এই জগতকে অনুপ্রাণিত করতে পারল না। আমরা প্রেরণাহীন সময় কাটাচ্ছি, আমাদের প্রতিদিনের নিঃসঙ্গতা, খবরহীন উদাসীনতা, আমাদেরকে সংকটের শুধুই গভীরে নিয়ে যাচ্ছে।

মাসুদ করিম

লেখক। যদিও তার মৃত্যু হয়েছে। পাঠক। যেহেতু সে পুনর্জন্ম ঘটাতে পারে। সমালোচক। কারণ জীবন ধারন তাই করে তোলে আমাদের। আমার টুইট অনুসরণ করুন, আমার টুইট আমাকে বুঝতে অবদান রাখে। নিচের আইকনগুলো দিতে পারে আমার সাথে যোগাযোগের, আমাকে পাঠের ও আমাকে অনুসরণের একগুচ্ছ মাধ্যম।

7
আলোচনা শুরু করুন কিংবা চলমান আলোচনায় অংশ নিন ~

মন্তব্য করতে হলে মুক্তাঙ্গনে লগ্-ইন করুন
avatar
  সাবস্ক্রাইব করুন  
সাম্প্রতিকতম সবচেয়ে পুরোনো সর্বাধিক ভোটপ্রাপ্ত
অবগত করুন
অবিশ্রুত
সদস্য

হয়তো আপনার এই লেখা পড়েই প্রথম আলো আজ ২৪ জুন আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদ্‌যাপনের খবর প্রকাশ করেছে। এখানে লিংকটিও দিচ্ছি। লক্ষ্য করুন, শিরোনামে বদলে দেয়ার কথাও আছে।
আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী বিষয়ক সংবাদ প্রকাশ না করে নিজের নিরপেক্ষতা সম্পর্কে প্রশ্ন তোলার সুযোগ করে দেবেন, এমন অসতর্ক তো মতিউর রহমানের হওয়ার কথা নয়! এটি কি তা হলে মতিউর দশক-এর অবসান ঘটার কোনও ইঙ্গিত?

রায়হান রশিদ
সদস্য

বাংলাদেশের মিডিয়া হাউজগুলোর ব্যাপারে বিস্তারিত জানার আগ্রহ হচ্ছে। সময়ের প্রয়োজনীয় দলিল হিসেবে একটা তালিকা মনে হয় করে রাখা যেতে পারে। যেমন:
– কে কোন মিডিয়ার সাথে জড়িত?
– কোন বিশেষ সময়ে সেই ব্যক্তির ভূমিকা (কিংবা ভূমিকার অনুপস্থিতি) ঠিক কি ছিল?
– সে সব ভূমিকার পেছনে সম্ভাব্য উদ্দেশ্য কি ছিল?
– অন্য কোন্ কোন্ সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক, সুশীল সংগঠন বা জোটের সাথে তারা জড়িত আছেন বা ছিলেন?
– তাদের কে কে সময় বুঝে ভোল পাল্টেছেন?
– এই সব মিডিয়ার পূঁজির উৎস কি? দেশীয় কিংবা বিদেশী কোনো কর্পোরেট হাউসের সাথে তাদের যোগাযোগ রয়েছে কি না?

এটা নাম ধাম ধরে করতে পারলে খুব ভাল হতো। একটা রেকর্ড থাকতো।

আবু নঈম মাহতাব মোর্শেদ
সদস্য

মাসুদ ভাই ধন্যবাদ ।কার্টূন সংকট এবং তার পরবর্তীতে তওবা পড়ার ভেতর দিয়ে মতির চরিত্র প্রকাশিত ।

trackback

[…] খবর নেই, গত ৫ সেপ্টেম্বর প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমানের ‘গণমাধ্যম,সম্পাদক ও প্রকাশকদের জন্য প্রশিক্ষণ চাই’ লেখাটি বাংলাদেশের সংবাদপত্র জগতের সংকট ও রাজনীতিকে সবার সামনে উন্মুক্ত করেছে, মতিউর রহমান বাংলাদেশের সবচেয়ে খ্যাতিমান সম্পাদক। তার ‘প্রথম আলো’ বাংলাদেশের সবচেয়ে খ্যাতিমান দৈনিক পত্রিকা, টিপু সুলতান ও মতিউর রহমান বাংলাদেশের সংবাদ জগতের এক অসম জুটি এবং এক বিশেষ ক্ষমতাচক্রের ঘনিষ্ঠ সহচর। কিন্তু সেটা কি এতদূর পর্যন্ত, ছোটবেলার কোরান শিক্ষার স্মৃতি বলে ‘আল-ইসরাত’ নামে কোনো সুরা কোরানে নেই। আগ্রহীরা খুঁজে দেখতে পারেন। ভুলভালে ভরে যাচ্ছে ‘প্রথম আলো’, শুক্রবারের কালের কণ্ঠে প্রথম পাতার খবর মুসলমানদের ইমান ধ্বংসের চক্রান্তে লিপ্ত প্রথম আলো এবং তাদেরই সহযোগী… বাকিটুকু পড়ুন »

  • Sign up
Password Strength Very Weak
Lost your password? Please enter your username or email address. You will receive a link to create a new password via email.
We do not share your personal details with anyone.