ধর্মের সাথে নৈতিকতার কোনো সম্পর্ক নেই

ধর্মের রাজনৈতিক ব্যবহার নিয়ে আমরা অনেক কথা বলি কিন্তু ধর্মের নৈতিক ব্যবহার নিয়ে আমরা কোনো কথা বলি না। [...]

ধর্মের রাজনৈতিক ব্যবহার নিয়ে আমরা অনেক কথা বলি কিন্তু ধর্মের নৈতিক ব্যবহার নিয়ে আমরা কোনো কথা বলি না। আবার দেখুন প্রায়ই বলতে শোনা যায় পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়েন কিন্তু দুনিয়ার আকাম কুকাম কোনোটা তার বাকি নেই – তার মানে কী, একথা যিনি বলছেন তিনি মনে করছেন নামাজ পড়া লোকটার আকাম কুকাম করাটা অস্বাভাবিক বা আকাম কুকাম করলে নামাজ পড়ার দরকার কি? এভাবে সততা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে, লোভ নিয়ে প্রশ্ন ওঠে, হিংসা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে প্রতি প্রশ্নে আঙ্গুল তোলা হয় রোজা নামাজ করা লোক কেমনে এত অসৎ লোভী হিংসুক হয়। একথাও বলতে শোনা যায় আমি হাজি মানুষ আপনার মনে হয় আমি ওজনে কম দেব, রোজামুখে বলছি এই মাল বিক্রি করে আমার লস হবে, সবচেয়ে ভয়ঙ্কর কথা কোরান ছুঁয়ে বলছি আমি ওনার সাথে সহবাস করিনি অথবা তিনি নামাজ কালাম পড়েন খুব আল্লাহওয়ালা ভাল মানুষ – এভাবে জীবনের প্রতি পদে পদে ধর্মকে সামনে দাঁড় করিয়ে নৈতিকতার ফিরিস্তি দেয়া হয় নৈতিকতা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়।

সাহিত্য শিল্প সৃষ্টি নিয়ে ও এসবের সাথে মাদকাসক্তির সম্পর্ক নিয়ে অনেক কথা বলতে শোনা যায়, কারো কারো কথা শুনলে এমনও মনে হতে পারে নিতান্ত মদই গিলতে পারে না সে আবার কবিতা লিখবে কী, গাঁজা নিয়েও এমন কথা উঠে আসে গিনসবার্গ গাঁজাসেবী তাই তিনি এত বড় কবি, আবার অন্যদিকেও কথা ওঠে কাড়ি কাড়ি মদ না গিললে বড় কথাশিল্পী হতেন তিনি, হেরোইনের নেশায় না পড়লে আপনারা কেউ কি দাঁড়াতে পারতেন ওর কবিতার সামনে। কিন্তু আমরা কখনো ভাবি না শুধু মাদক সেবন শিখলে তো কেউ কবিতা লিখতে পারে না বা শুধু কবিতা লিখতে শিখলে কেউ মাদক সেবক হতে পারে না – দুটোই আলাদা আলাদা শিখতে হয়।

তাই ধর্মের অনুশাসন পালন শিখলেই আপনার নৈতিক শিক্ষা হয়ে যাবে এটা তো হতে পারে না। আপনাকে নৈতিক শিক্ষার ভেতর দিয়ে যেতে হবে – আপনি অসৎ লোভী হিংসুক মানেই আপনার নৈতিক শিক্ষা হয়নি বা আপনি আপনার নৈতিক শিক্ষা ভুলে গেছেন, যেরকম অনেকেই শিক্ষাকালের পর তার আরব্ধ শিক্ষা ভুলে যায়।

প্রতি পদে পদে ধর্মের নৈতিক ব্যবহার থেকে সমাজকে মুক্ত হতে হবে – আপনার নামাজ কালাম আপনার, আপনার নৈতিকতাও আপনার – একটা দিয়ে আরেকটা হাসিল করতে যাবেন না, কারো নৈতিক দৃঢ়তাকে তার ধার্মিক দৃঢ়তা বলে ভুল করবেন না এবং কারো ধার্মিক অর্জনকে তার নৈতিক অর্জন বলে ভুল করবেন না। ধর্মের নৈতিক ব্যবহার ও নীতির ধার্মিক ব্যবহার পরিহার করুন। ধর্মের সাথে নৈতিকতার কোনো সম্পর্ক নেই, নৈতিকতার সাথেও ধর্মের কোনো সম্পর্ক নেই।

মাসুদ করিম

লেখক। যদিও তার মৃত্যু হয়েছে। পাঠক। যেহেতু সে পুনর্জন্ম ঘটাতে পারে। সমালোচক। কারণ জীবন ধারন তাই করে তোলে আমাদের। আমার টুইট অনুসরণ করুন, আমার টুইট আমাকে বুঝতে অবদান রাখে। নিচের আইকনগুলো দিতে পারে আমার সাথে যোগাযোগের, আমাকে পাঠের ও আমাকে অনুসরণের একগুচ্ছ মাধ্যম।

৪ comments

  1. মাসুদ করিম - ২৮ জানুয়ারি ২০১৭ (১:৫৮ অপরাহ্ণ)

    Barapukuria coalmine MD stand-released

    Engineer SM Nurul Aurangajeb, Managing Director of Barapukuria Coal Mine Company Ltd, has been stand-released on charge of corruption. Officials and employees of the coalmine sent a letter to the Prime Minister on January 19 demanding removal of the MD on allegations of irregularities, corruption and nepotism against him. When Nurul came to know about the matter, he made over 100 staff members pledge with their hands on the Holy Quran not to reveal any information about his corruption. After the matter came to their notice, the higher authorities took the action against him Thursday. He was attached to the Petrobangla chairman’s office. Meanwhile, General Manager (Marketing) Engineer Habib Uddin Ahmed was made acting managing director. — UNB

  2. Pingback: ধর্মের সাথে নৈতিকতার কোনো সম্পর্ক নেই | প্রাত্যহিক পাঠ

  3. Sam - ৮ আগস্ট ২০১৭ (৩:১৬ পূর্বাহ্ণ)

    ধর্মের সাথে যদি নৈতিকতার সম্পর্ক না থাকে তবে ধর্মের দরকার কি?

  4. সুরজিৎ ব্যানার্জ্জী - ১৫ মে ২০১৮ (১:০৪ অপরাহ্ণ)

    “ধর্মের সাথে নৈতিকতার কোনো সম্পর্ক নেই, নৈতিকতার সাথেও ধর্মের কোনো সম্পর্ক নেই।” – হক কথা। ভাল লাগল।

Have your say

  • Sign up
Password Strength Very Weak
Lost your password? Please enter your username or email address. You will receive a link to create a new password via email.
We do not share your personal details with anyone.