শহীদ মিনার কি ধর্মীয় উৎসব উদ্‌যাপনের স্থান?

আমরা বিস্মিত ও ক্ষুব্ধ; গত দু'দিন ধরেই একটি প্রশ্ন মনের মধ্যে ঘুরপাক খাচ্ছে : শহীদ মিনার কি ঈদের নামাজ পড়ার স্থান? [...]

আমরা বিস্মিত ও ক্ষুব্ধ; গত দু’দিন ধরেই একটি প্রশ্ন মনের মধ্যে ঘুরপাক খাচ্ছে : শহীদ মিনার কি ঈদের নামাজ পড়ার স্থান?

ছবি : জুবায়ের রাকেশ

বেহাল মহাসড়কের জন্য যোগাযোগ মন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেনের অপসারণ দাবি করে ‘ছাত্র-শিক্ষক-পেশাজীবী জনতা’ গত বুধবারে (২৪ আগস্ট) যে-কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন তার সারমর্মের সঙ্গে আমাদের মতো সাধারণ মানুষের কোনো দূরত্ব নেই। যদিও এই দাবিসমূহ আরো সুনির্দিষ্ট হতে পারত; যেমন, নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খানের পদত্যাগের দাবিও এখানে যুক্ত হতে পারত।

কিন্তু উদ্বেগের বিষয় হলো, এই কর্মসূচির মাধ্যমে পাকিস্তানের সামরিক স্বৈরশাসক থেকে শুরু করে বাংলাদেশের সামরিক জান্তা হোসেইন মুহম্মদ এরশাদ সহিংস উপায়ে যে-কাজটি করতে পারেননি, সৈয়দ আবুল মকসুদের নেতৃত্বে ‘ছাত্র-শিক্ষক-পেশাজীবী জনতা’ অহিংস উপায়ে ঠিক সেই কাজটিই করতে চলেছেন — তাঁরা শহীদ মিনারের মতো সেক্যুলার জনদাবি আদায় ও শ্রদ্ধানিবেদনের সম্মিলনস্থানটিকে ধর্মীয় উৎসব উদ্‌যাপনের স্থানে পরিণত করতে চলেছেন। এর ভবিষ্যৎ কী তা কি আমরা একবারও ভেবে দেখেছি?

আমরা আশা করব, এই কর্মসূচি পালনের স্থান পরিবর্তন করা হবে। শহীদ মিনারকে ধর্মপরিচয়ের ঊর্ধ্বে উঠে সম্মিলনের স্থান হিসেবেই দেখতে চাই, ধর্মীয় উদ্‌যাপনের স্থান হিসেবে নয়।

অবিশ্রুত

সেইসব দিন স্মরণে,- যখন কলামিস্টরা ছদ্মনামে লিখতেন; এমন নয় যে তাদের সাহসের অভাব ছিল, তারপরও তারা নামটিকে অনুক্ত রাখতেন। হতে পারে তাৎক্ষণিক ঝড়-ঝাপটার হাত থেকে বাঁচতেই তারা এরকম করতেন। আবার এ-ও হতে পারে, সাহসকেও বিনয়-ভুষণে সজ্জিত করেছিলেন তারা। আমারও খুব ইচ্ছে দেখার, নামহীন গোত্রহীন হলে মানুষ তাকে কী চোখে দেখে... কাঙালের কথা বাসী হলে কাঙালকে কি মানুষ আদৌ মনে করে!

20
আলোচনা শুরু করুন কিংবা চলমান আলোচনায় অংশ নিন ~

মন্তব্য করতে হলে মুক্তাঙ্গনে লগ্-ইন করুন
avatar
  সাবস্ক্রাইব করুন  
সাম্প্রতিকতম সবচেয়ে পুরোনো সর্বাধিক ভোটপ্রাপ্ত
অবগত করুন
মাসুদ করিম
সদস্য

এইসব বিষয়ে আর কথা বলতে ইচ্ছে হয় না। বাংলাদেশের ‘মিডিয়াজীবী’রা এখন নিজেদের ‘হিট’এ পরিণত করতেই ব্যস্ত। আর সৈয়দ আবুল মকসুদ কি বাংলাদেশের গান্ধীবাদী শোয়ের অগ্রনায়ক হিসাবে অভিষিক্ত হতে চান অদূর ভবিষ্যতে?

রায়হান রশিদ
সদস্য

নিজের ঢোল বাজলে দেশের নাম!

রেজাউল করিম সুমন
সদস্য

আপনি লিখেছেন,

আমরা আশা করব, এই কর্মসূচি পালনের স্থান পরিবর্তন করা হবে। শহীদ মিনারকে ধর্মপরিচয়ের ঊর্ধ্বে উঠে সম্মিলনের স্থান হিসেবেই দেখতে চাই, ধর্মীয় উদ্‌যাপনের স্থান হিসেবে নয়।

একই মত আমাদেরও।

এদিকে গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকা-ময়মনসিংহ সড়কের মেরামতকাজ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে যোগাযোগমন্ত্রী বলেছেন (খবরের লিংক):

ঈদের আগে যদি রাস্তা যানবাহন চলাচলের জন্য সাময়িকভাবে উপযোগী না হয় এবং মানুষ বাড়ি যেতে না পারে, তবে আমিও শহীদ মিনারে গিয়ে ঈদ করব।

ধাষ্টামোরও তো একটা সীমা থাকা উচিত!

robii
সদস্য
robii

অবাক হই না এখন আর, আমাদের সামনে শুধুই অন্ধকার দেখি, দেশে সড়ক যোগাযোগের যে বেহাল দশা সেটি এত দিনে আমাদের বুঝতে হল এক অপূরণীয় ক্ষতি মেনে নিয়ে। সামনে ঈদ — সারা দেশ ব্যস্ত, সবাই যে করে হোক নিজের অঞ্চলে ফিরতে মরিয়া। এই সব বাস্তবতা জেনেও, অনেক অনিশ্চয়তা ও অনিরাপত্তার ভিতর থেকেও আজ মনে প্রশ্ন জাগে, মান বড় না প্রাণ বড়? শহীদ মিনার আর ধর্মীয় উৎসব কী উপায়ে মানবিক নিরাপত্তার দাবি আদায়ের প্রশ্নে তালগোল পাকিয়ে ফেলছে ঠিক বুঝে উঠতে পারছি না। এর ভিতরে আবার কী পলিটিক্স আছে না আছে তাও বোঝা মুশকিল। আসলে শহীদ মিনারে দাবি আদায়ের জন্য আমরা সময়ে-অসময়ে সমবেত… বাকিটুকু পড়ুন »

শামীম
অতিথি
শামীম

ভালো লাগল। একই বিষয় নিয়ে নিজস্ব বিশ্লেষণ উপস্থাপন করেছেন আরিফ জেবতিক, আমার ব্লগ-এ। লিংক এখানে। নীচে কোট করছি। শহীদ মিনারে ঈদ পালন আর এসলামীবঙ্গের বু্দ্ধিজীবিদের সংকট স্বীকার করে নিতে হয় যে, আইডিয়ার অভিনবত্বের কারণেশহীদ মিনারে ঈদ পালনের আইডিয়াটা আমার বেশ পছন্দ হয়েছে। মানুষ নতুনত্ব পছন্দ করে, সেই নতুনত্বে সামাজিক ও ধর্মীয় উৎসবের সঙ্গে রাজনীতির এই মিশেল একটা নতুন আইডিয়া। আমরা বছরের ৩৬৫ দিনই রাজনীতি করা জাতি, ঈদের দিন যদি লাইন ধরে বিএনপি আওয়ামীলীগ কর্মীরা নিজ নিজ নেত্রীর সঙ্গে দেখা করে রাজনীতি করতে পারে, সেক্ষেত্রে নেত্রীবিহীনদের জন্য শহীদ মিনারে ঈদ পালন একটা ভালো কর্মসূচি হতে পারে। শহীদ মিনারে ঈদের দিন জমায়েত… বাকিটুকু পড়ুন »

রায়হান রশিদ
সদস্য

কিছু কিছু বিষয় role reverse করলে বুঝতে সুবিধা হয়। যেমন ধরা যাক, আজকে থেকে যদি বায়তুল মোকাররমের জুম্মা বার কোন সেক্যুলার দাবী দাওয়া আলোচনার কেন্দ্র হয়ে ওঠে তখন যেমন সেটা অস্বস্তির কারণ হয়ে উঠতে পারে, বিষয়টি আমার কাছে তেমনই। সেক্যুলার রাজনীতি, সেক্যুলার প্রতিষ্ঠান, সেক্যুলার সংবিধান সর্বত্রই তো ধর্মীয় অনুষঙ্গের অনুপ্রবেশ ঘটছে নানান ছদ্মবেশের আড়ালে। কখনো ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে, কখনো আমাদের অজ্ঞাতে, কখনো আমাদেরই সমর্থন নিয়ে আমাদেরই নামে। অবশিষ্ট গুটিকয় সেক্যুলার ফ্রন্টে এভাবে ধর্মীয় উৎসব পালনের পরোক্ষ আবহ তৈরী না হলেই মঙ্গল। নাহলে এর পর কি? ঈদে মিলাদুন্নবী বা আখেরী চাহার উপলক্ষে যদি জামাতিরা রায়ের বাজার বা সাভার সৌধে দু’আ অনুষ্ঠান… বাকিটুকু পড়ুন »

মোহাম্মদ মুনিম
সদস্য

‘ছাত্র-শিক্ষক-পেশাজীবী জনতা’ শহীদ মিনারে ঈদ পালন করবেন নাকি ঈদের নামাজ পড়বেন সেটা ঠিক বোঝা যাচ্ছে না (একটু পরেই বোঝা যাবে)। যে যার মত নিজের পাড়ায় ঈদের নামাজ পড়ে (বা না পড়ে) শহীদ মিনারে এক হয়ে প্রতিবাদ সমাবেশ করতেই পারেন, তাতে শহীদ মিনারের সেক্যুলার ইমেজের ক্ষতি হবে বলে মনে হয় না। ঈদ ধর্মীয় উৎসব হলেও এটার একটা সামাজিক চেহারা আছে, এই দিনে বাংলাদেশের অমুসলিমরাও উৎসবের আমেজেই থাকেন, পশ্চিম বঙ্গে দুর্গাপূজার সময় যেমন থাকেন সেখানকার মুসলিমরা (একেবারে গোঁড়া নাহলে)। ঈদের দিনে ছাত্র-শিক্ষক-পেশাজীবী জনতা উৎসব না করে প্রতিবাদ সমাবেশ করে দিনটি কাটাবেন, এটাই বোধহয় তাদের মূল বক্তব্য।

মাসুদ করিম
সদস্য

সবচেয়ে বড় কথা হল ‘জাতীয় কমিটি’ ‘ছাত্র-শিক্ষক-পেশাজীবি জনতা’ এসব করে কিছুই হবে না। রাজনীতির মোকাবেলায় রাজনীতি দরকার হয়। কমিটি, জনতা এসব বাদ দিয়ে রাজনৈতিক প্লাটফর্ম তৈরি করুন। না হয় যিনি প্রফেসর তিনি প্রফেসরগিরি করুন আর যিনি সাংবাদিক গবেষক তিনি সাংবাদিকতা ও গবেষণা করুন। অযথা রাজনৈতিক বিষয়ে অরাজনৈতিক ‘সিভিলতা’ হয়ে গাছ বেয়ে ওঠার চেষ্টা করে কোনো লাভ নেই — লতা শেষ পর্যন্ত লতাই থেকে যায়। কাজের কাজ করতে হলে রাজনৈতিক লক্ষ্য নিয়ে কাজ করুন। বিএনপি সংসদ থেকে পদত্যাগ করলে সেই সংসদ উপনির্বাচনে নির্বাচন করে কিছু আসন জিতে আসার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করুন — অথবা বিএনপির সাথে এক হয়ে কার্যকর কোনো জোট… বাকিটুকু পড়ুন »

সৈকত আচার্য
সদস্য

একটা বিষয় নিশ্চিত নই। শহীদ মিনারের কর্মসূচীটা কি ছিলো, এটা কি কেবল প্রতিবাদী সমাবেশ নাকি প্রতিবাদী সমাবেশ ও ঈদ পালন দু’টোই তাদের ঘোষনার মধ্যে ছিলো? কেউ কি বিষয়টা পরিস্কার করে বলবেন, দয়া করে। রায়হান লিখেছেঃ সেক্যুলার দাবী আদায়ের জন্য যে কোন দিন যে কোন ভেন্যু নির্বাচন যেমন গণতান্ত্রিক সেক্যুলার আন্দোলনের কর্মীদের অধিকার, তেমনি যুদ্ধাপরাধী চক্রের রাজনৈতিক দলগুলো যদি ছদ্মবেশী রাজনৈতিক কর্মসূচী হিসেবে, বা স্রেফ ইয়ার্কি করার জন্য, শহীদদের রূহের মাগফেরাত কামনায় এই সব ঐতিহাসিক স্থান নির্বাচন করে বসে তখন তাদের কি বলে নিরস্ত করবো আমরা? কোন্ যুক্তি বা অধিকারে নিরস্ত করবো? এ কারণেই রাষ্ট্রীয় দিবসগুলোতে সরকার এবং রাজনৈতিক দলগুলোর পক্ষ… বাকিটুকু পড়ুন »

সায়মা সুলতানা
অতিথি
সায়মা সুলতানা

সৈকত দা’র ফেসবুক ওয়ালে দেখলাম একজন আফজাল জামী সাহেব অবিশ্রুতের এই লেখা নিয়ে মন্তব্য প্রদান করেছেন এভাবেঃ ” written in very poor taste….they did not pray at the Shohid Minar…only celebrated the civic part (gathering) of it in protest of something they believed in…this writer smacks of islamophobia and missed the point that occasions like Eid, Pujas also have civic/secular elements to it…” জানি না তিনি ঠিক কি বুঝেছেন, অবিশ্রুতের লেখা পড়ে। তবে এটা বুঝলাম যে, অবিশ্রুতের আগের কোন লেখা তিনি এখানে পড়েননি। তার লেখনি সম্পর্কে জনাব জামীর কোন ধারনাই নাই, যে কারনে এই লেখাটাও তিনি বুঝতে পারেননি। অবিশ্রুত কি… বাকিটুকু পড়ুন »

সৈকত আচার্য
সদস্য

@সায়মাঃ তোমার মন্তব্যটি কিছুটা আক্রমনাত্মক মনে হতে পারে অনেকের কাছে, যদিও আফজাল জামীর বক্তব্যের সাথে আমি মোটেও একমত নই। আমার ধারনা অবিশ্রুতের অন্যান্য লেখার সাথে সে পরিচিত নয়।

আমিন আহম্মদ
অতিথি
আমিন আহম্মদ

ওটা একটি ভন্ডামী ছাড়া আর কিছুই ছিলনা। একটা মিমাংশিত বিষয়কে পুঁজি করে ধান্দা করতে চাইছে। ধন্যবাদ লেককখে।

মাসুদ করিম
সদস্য

আন্না হাজারে আজকে বলেছেন

Note down names of people who opposed J.L.P Bill. Do gherao in front of their houses. Don’t allow them to come out of their homes

লিন্ক এখানে।

আমাদের আন্না হাজারেরাও যেন এরকম বলে না বসেন!

মাসুদ করিম
সদস্য

গান্ধীবাদী সৈয়দ আবুল মকসুদ দেখছি খুব ঘটা করে জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জেকে ‘মহাত্মা’ বলছেন, খুব ভাল লাগছে গান্ধীর পর আরেকজন ‘মহাত্মা’কে তিনি খুঁজে পেয়েছেন বলে। কিন্তু অ্যাসাঞ্জের ব্যাপারে একটা মজার কাণ্ড হল আজ যে তার মুখে ফুলচন্দন দিচ্ছে কালই সে তাকে জুতাপেটা করতে দৌড়াচ্ছে। ২০০৭-২০০৮এ বাংলাদেশে শীর্ষ মিডিয়াজীবীদের যেভূমিকা ছিল, খুব আশ্চর্য হব না কাল যদি ওই ফাঁস হয়ে যাওয়া ‘ইউএস ক্যাবল’এ ওই শীর্ষ মিডিয়াজীবীদেরকে নিয়েও কোনো ক্যাবল উদঘাটিত হয়। তখনও কি গান্ধীবাদী সৈয়দ আবুল মকসুদ অ্যাসাঞ্জেকে ‘মহাত্মা’সম প্রণাম জানাতে পারবেন?

  • Sign up
Password Strength Very Weak
Lost your password? Please enter your username or email address. You will receive a link to create a new password via email.
We do not share your personal details with anyone.