বিপন্ন ভাষা

৬০০০ ভাষার মধ্যে ২৪৯৮টিই বিপন্ন। পাঁচ রকমের বিপন্নতায় ভাগ করা হয়েছে বিপন্ন ভাষাগুলোকে। বিপন্ন (শিশুরা এ ভাষায় কথা বলে, কিন্তু সব সময় সব জায়গায় বলে না) ৬০৭টি, নিশ্চিত ভাবে বিপন্ন (মাতৃভাষা হিসেবে শিশুরা ঘরে আর ভাষাটি শেখে না) ৬৩২টি, ভয়াবহ ভাবে বিপন্ন (দাদা-দাদিরা বা বুড়ো প্রজন্ম এ ভাষায় কথা বলে, বাবা-মারা বা তাদের প্রজন্ম সে ভাষা বুঝতে পারে, কিন্তু নিজেদের মধ্যে তারা এ ভাষায় কথা বলে না এবং শিশুদেরও ভাষাটি আর শেখায় না) ৫০২টি, চূড়ান্ত বিপন্ন ( বুড়ো প্রজন্মই শুধু ভাষাটি ব্যবহার করে, কিন্তু তাদের মধ্যেও অনেকেই ভাষাটি ভুলে গেছে এবং যারা জানে তারাও সব সময় সে ভাষায় কথা বলে না) ৫৩৮টি ও অবলুপ্ত ( কেউই আর ভাষাটিতে কথা বলে না) ২১৯টি।

বাংলাদেশে পাঁচটি ভাষাকে বিপন্ন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। ককবরক, বিষ্ণুপ্রিয়-মণিপুরী, কুরুক্স –এই তিনটি বিপন্ন, বম নিশ্চিত ভাবে বিপন্ন এবং সাক ভয়াবহ ভাবে বিপন্ন।

১৯৬টি বিপন্ন ভাষা নিয়ে তালিকার শীর্ষে রয়েছে ভারত, তার পর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র (১৯২), ব্রাজিল(১৯০), ইন্দোনেশিয়া (১৪৭) ও মেক্সিকো (১৪৪)।

ভয়াবহ ভাবে বিপন্ন, মাত্র ২৯০০০ ভাষাভাষী নিয়ে বিপন্ন ভাষা, এভেন্কি। সে ভাষায় লেখা একটি কবিতার ইংরেজি অনুবাদ পেয়েছি ইউনেস্কোর ওয়েবসাইটে।

If I forget my native speech,
And the songs that my people sing
What use are my eyes and ears?
What use is my mouth?

If I forget the smell of the earth
And do not serve it well
What use are my hands?
Why am I living in the world?

How can I believe the foolish idea
That my language is weak and poor
If my mother’s last words
Were in Evenki?
— Alitet Nemtushkin, Evenki poet

এই পোস্টের সব তথ্যই সংগৃহীত হয়েছে ইউনেস্কোর ওয়েবসাইট থেকে। ২০০৮ এর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ইউনেস্কো প্রকাশ করেছে ‘বিপন্ন ভাষা’র মানচিত্রের নতুন সংস্করণ। অষ্ট্রেলিয়ার ভাষাবিজ্ঞানী ক্রিস্টোফার মোসলের সম্পাদনায় সারা পৃথিবীর ৩০ জন ভাষাতত্ত্ববিদের পরিশ্রমে তৈরি হয়েছে এ বারের মানচিত্র। মানচিত্রটি দেখুন ও বিষয়টি আরো বিস্তারিত জানুন।

মাসুদ করিম

লেখক। যদিও তার মৃত্যু হয়েছে। পাঠক। যেহেতু সে পুনর্জন্ম ঘটাতে পারে। সমালোচক। কারণ জীবন ধারন তাই করে তোলে আমাদের। আমার টুইট অনুসরণ করুন, আমার টুইট আমাকে বুঝতে অবদান রাখে। নিচের আইকনগুলো দিতে পারে আমার সাথে যোগাযোগের, আমাকে পাঠের ও আমাকে অনুসরণের একগুচ্ছ মাধ্যম।

19
আলোচনা শুরু করুন কিংবা চলমান আলোচনায় অংশ নিন ~

মন্তব্য করতে হলে মুক্তাঙ্গনে লগ্-ইন করুন
avatar
  সাবস্ক্রাইব করুন  
সাম্প্রতিকতম সবচেয়ে পুরোনো সর্বাধিক ভোটপ্রাপ্ত
অবগত করুন
মৈবাম সাধন
সদস্য

খুবই সুন্দর একটি লেখা। তবে শুধুমাত্র বাংলাদেশেই বিলুপ্ত বা বিলুপ্তির পথে যে ভাষাগুলো তাদের একটা সমীকরণ দিলে আরো ভালো লাগত।

ধন্যবাদ লেখাটির জন্য।

রায়হান রশিদ
সদস্য

ক. এই লেখাটির জন্য মাসুদ করিমকে অনেক ধন্যবাদ। একুশে ফেব্রুয়ারীকে আন্তর্জাতিক ভাষা দিবস হিসেবে ঘোষণার পেছনে কিছু মানুষের গুরুত্বপূর্ণ অবদান রয়েছিল বলে জানি। কিছুদিন আগে মুন্নী সাহা তাঁদেরই একজনের (বিদেশ দফতরের প্রাক্তন এক সচিব) সাক্ষাৎকার নিয়েছিলেন টিভিতে। সবগুলো তথ্য টুকে নিতে পারিনি। কারো যদি সেই পুরো প্রক্রিয়াটির ব্যাপারে জানা থাকে তাহলে উল্লেখ করলে ভাল হয়। – কারা নিয়েছিলেন এই উদ্যোগ? – কিভাবে কুটনৈতিক প্রক্রিয়ায় জাতিসংঘ এবং ইউনেস্কোর বিভিন্ন নিয়মনীতির সাথে যুদ্ধ করে এই দাবীটি শেষ পর্যন্ত অনুমোদন করানো গেল? – কোন্ কোন্ দেশ এই দাবীকে সমর্থন দিয়েছিল? কারা দেয়নি? [যতদূর জানি, ইউরোপীয় ব্লকের দু’একটি দেশ ছাড়া বাকীদের নাকি তেমন একটা… বাকিটুকু পড়ুন »

রায়হান রশিদ
সদস্য
মহসীন রেজা
অতিথি
মহসীন রেজা

বাংলাদেশে বসবাসরত সকল আদিবাসিদের ভাষা রক্ষায় জোর অগ্রগতি চাই। মায়ের ভাষায় তাদের পাঠ্যপুস্তক চাই।

  • Sign up
Password Strength Very Weak
Lost your password? Please enter your username or email address. You will receive a link to create a new password via email.
We do not share your personal details with anyone.